বিভাগ: উত্তরণ ডেস্ক

জন্মদিনে প্রধানমন্ত্রীর সুস্থতা ও দীর্ঘায়ু কামনা

13প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা দেশে না থাকলেও তার ৭১তম জš§দিন পালনের কোনো কমতি ছিল না। তবে নির্যাতনের হাত থেকে রক্ষা ও প্রাণ বাঁচাতে মিয়ানমার থেকে আসা আর্তপীড়িত রোহিঙ্গাদের প্রতি সম্মানার্থে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী তার এবারের জš§দিন উপলক্ষে কোনো কেক কাটা হয়নি, ছিল না কোনো আনন্দ-উৎসব। রাজধানীসহ সারাদেশে মিলাদ, দোয়া মাহফিল, দরিদ্রদের মাঝে খাবার বিতরণ, বিশেষ প্রার্থনা সভা, রক্তদান ও আলোচনা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে গত ২৮ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর ৭১তম জš§দিন পালন করা হয়। আর এসব কর্মসূচিতে প্রধানমন্ত্রীর সুস্থতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করা হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ সন্তান শেখ হাসিনা ১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর মধুমতি নদীবিধৌত গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জš§গ্রহণ করেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ এ পর্যন্ত দুই মেয়াদ পূর্ণ করে তিন মেয়াদে ক্ষমতাসীন হয়েছে। গত পাঁচ বছরের মতো এবারও জš§দিনে দেশের বাইরে অবস্থান করছেন প্রধানমন্ত্রী। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭২তম অধিবেশনে যোগদান শেষে বর্তমানে তিনি ওয়াশিংটনে অবস্থান করছেন। ওয়াশিংটনের একটি হাসপাতালে স্থানীয় সময় ২৫ সেপ্টেম্বর রাত ৮টায় (বাংলাদেশ সময় ২৬ সেপ্টেম্বর, সকাল ৬টা) তার গলব্লাডারে সফলভাবে অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে তার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়, বোন শেখ রেহানাসহ ভাগ্নে-ভাগ্নি, নাতি-নাতনিদের সাথে পারিবারিক পরিবেশে জš§দিন পালন করেন শেখ হাসিনা। তবে সেখানেও ছিল না কোনো কেক কাটা ও আনন্দ-উৎসব। দিবসটি উপলক্ষে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদসহ দেশের বিভিন্ন মসজিদ, মন্দির ও প্যাগোডাসহ বিভিন্ন উপাসনালয়ে বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনা সভার আয়োজন করা হয়। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বাদ জোহর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। মোনাজাতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সকল শহীদের রুহের মাগফিরাত কামনা করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর গলব্লাডারের সফল অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হওয়ায় তার দ্রুত সুস্থতা কামনা করা হয়। সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে রাষ্ট্র পরিচালনায় আল্লাহর রহমত কামনা করা হয়। এ সময় দেশ ও জাতির শান্তি, সমৃদ্ধি ও উন্নতি কামনা করে দোয়া করা হয়। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আবদুর রাজ্জাক এমপি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ এমপি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান এমপি, ধর্ম সচিব মো. আনিছুর রহমান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজালসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগরের শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দ, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারী, ওলামায়ে কেরাম এবং সর্বস্তরের ধর্মপ্রাণ মুসল্লি এতে অংশ নেন। দুপুরে ঢাকেশ্বরী মন্দিরে এবং বিভিন্ন প্যাগোডা, গির্জাসহ ধর্মীয় উপাসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭১তম জš§দিন উপলক্ষে দেশের সরকারি হাসপাতালসহ সব ধরনের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ২ ঘণ্টা বেশি স্বাস্থ্যসেবা দেওয়া হয়। চিকিৎসকরা সকাল ৮টা থেকে বেলা ২টার পরিবর্তে ৪টা পর্যন্ত মানুষকে সেবা দিয়েছেন।
শেখ হাসিনার ৭১তম জš§দিন উপলক্ষে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এক আলোচনা সভার আয়োজন করে। মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে সভায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন।
জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি শফিকুর রহমানের উদ্যোগে ২৮ সেপ্টেম্বর এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধু পরিবারের বয়োজ্যেষ্ঠ সদস্য বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতির চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন। সেমিনারে ‘রোহিঙ্গা শরণার্থী সংকট সমাধানে শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্ব’ শীর্ষক প্রবন্ধ পাঠ করেন দৈনিক জনকণ্ঠের সহকারী সম্পাদক বিশিষ্ট সাংবাদিক জাফর ওয়াজেদ। আলোচনায় অংশ নেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা নূহ-উল-আলম লেনিন, দৈনিক সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার, দৈনিক ইত্তেফাকের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক তাসমিমা হোসেন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, দৈনিক জনকণ্ঠের নির্বাহী সম্পাদক স্বদেশ রায়, জাতীয় প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি আজিজুল ইসলাম ভূঁইয়া ও সাংবাদিক নেতা কুদ্দুস আফ্রাদ প্রমুখ। বাদ আছর প্রেসক্লাবে এক দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।
এদিকে প্রধানমন্ত্রীর জš§দিন উপলক্ষে সকালে ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে রিকশা ও ভ্যান বিতরণ করা হয়। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী এমপি, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি উপস্থিত থেকে এই ভ্যান ও রিকশা বিতরণ করেন। আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপ-কমিটি বন্যা ও দারিদ্র্যপীড়িত মানুষের মধ্যে এই রিকশা ও ভ্যান বিতরণের কর্মসূচি গ্রহণ করে। কর্মসূচি উপস্থাপন করেন আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যণ সম্পাদক সুজিত নন্দী রায়। আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম এমপি প্রমুখ এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন। এদিকে দিবসটি উপলক্ষে আওয়ামী যুবলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ রাজধানী সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এক ব্যতিক্রমী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। দোয়া মাহফিল, আলোচনা সভা ও রক্তদান কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে দোয়া মাহফিল হয়। মোনাজাতে সবাই দু’হাত তুলে শেখ হাসিনার জন্য দোয়া এবং দীর্ঘায়ু কামনা করেন। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাঈল চৌধুরী স¤্রাটের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি, যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। আলোচনা সভা শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জš§দিন উপলক্ষে মিলাদ মাহফিল ও স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। ওবায়দুল কাদের এই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।
শেখ হাসিনার জš§দিন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খানের সভাপতিত্বে সভায় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এ উপলক্ষে রাজধানীতে মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের পক্ষ থেকে কোরআনখানি, মিলাদ মাহফিল, দোয়া ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে এ মিলাদ মাহফিল, দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় কমিটির সভাপতি হারুণ অর রশিদের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আলী শিকদার, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সেলিনা ইসলাম প্রমুখ।

প্রধানমন্ত্রীর জš§দিন উপলক্ষে গণভবনে দোয়া মাহফিল
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭১তম জš§দিন উপলক্ষে ২৮ সেপ্টেম্বর বাদ আছর তার সরকারি বাসভবন গণভবনে এক দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীঘার্য়ু কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। এ ছাড়া অনুষ্ঠানে তার দ্রুত আরোগ্য কামনা করা হয়। অনুষ্ঠানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং ১৫ আগস্টে শাহাদাতবরণকারী তার পরিবারের অন্য সদস্যদের রুহের মাগফেরাত কামনা এবং দেশের অব্যাহত শান্তি, সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। দোয়া মাহফিলে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমাম, মুখ্য সচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজিবিষয়ক প্রধান সমন্বয়কারী মো. আবুল কালাম আজাদ এবং প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদিনসহ গণভবন ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন। সোবহানবাগ জামে মসজিদের পেশ ইমাম আলহাজ মো. লিয়াকত হোসেন মোনাজাত পরিচালনা করেন।

প্রধানমন্ত্রীর গলব্লাডারে সফল অস্ত্রোপচার
যুক্তরাষ্ট্র সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গলব্লাডারে সফলভাবে অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে। ওয়াশিংটনের একটি হাসপাতালে স্থানীয় সময় গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাত ৮টায় (বাংলাদেশ সময় ২৬ সেপ্টেম্বর, সকাল ৬টা) তার এ অস্ত্রোপচার করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং জানায়, সফল অস্ত্রোপচারের পরে প্রধানমন্ত্রী এখন সম্পূর্ণ সুস্থ রয়েছেন। তিনি দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী এখন বিশ্রামে রয়েছেন।
প্রেস উইং আরও জানান, এর আগে প্রধানমন্ত্রী হঠাৎ পেটে ব্যথা অনুভব করলে তাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন এবং গলব্লাডারে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রীর পাশে তার ছোট বোন শেখ রেহানা ও পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয় উপস্থিত ছিলেন। অস্ত্রোপচারের একদিন পরে প্রধানমন্ত্রী ওয়াশিংটনে তার আবাসস্থলে ফিরে আসেন।
জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) ৭২তম অধিবেশনে যোগদান উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী ১৩ দিনের সরকারি সফরে যুক্তরাষ্ট্র যান। জাতিসংঘের এ অধিবেশনে যোগদানের পরে ২২ সেপ্টেম্বর শেখ হাসিনা নিউইয়র্ক থেকে ওয়াশিংটনে পৌঁছান।
তবে গলব্লাডারে অপারেশনের কারণে প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরার তারিখ পরিবর্তন হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী আগামী ৭ অক্টোবর দেশে ফিরবেন।
শুকরিয়া আদায় : এদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে অবস্থানরত প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার গলব্লাডারে সফলভাবে অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হওয়ায় মহান আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া জ্ঞাপন করেছেন। আওয়ামী লীগের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ওবায়দুল কাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শারীরিক সুস্থতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া প্রার্থনার জন্য দলীয় নেতা-কর্মী, সমর্থক-শুভানুধ্যায়ী এবং দেশবাসীর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

টিকিট কেটে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গাজীপুরের শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব মেমোরিয়াল কেপিজে বিশেষায়িত হাসপাতালে নিজের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করিয়েছেন। গত ৯ সেপ্টেম্বর সকাল ৮টায় প্রধানমন্ত্রী ছোট বোন শেখ রেহানাকে নিয়ে কাশিমপুরের ২৫০ শয্যার হাসপাতালটিতে পৌঁছান। সাধারণ রোগীর মতোই কাউন্টারে দাঁড়িয়ে নাম নিবন্ধন করে টিকিট নিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করান তিনি।
হাসপাতালের ভিজিটিং কনসালট্যান্ট প্রাণ গোপাল দত্ত জানান, প্রধানমন্ত্রী রক্ত, আলট্রাসনোগ্রাম, এক্স-রের মতো নিয়মিত কিছু পরীক্ষা করান। প্রধানমন্ত্রী ভালো আছেন। কোনো অসুস্থতা নেই তার। নিজের মায়ের নামে প্রতিষ্ঠিত এই হাসপাতালে দেড় বছর আগেও চিকিৎসা নিতে গিয়েছিলেন শেখ হাসিনা।
প্রায় আড়াই ঘণ্টা অবস্থানের সময় শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা হাসপাতালের চিকিৎসক ও প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করেন। খালি পেটে রক্ত দিয়ে হাসপাতালেই নাস্তা করেন শেখ হাসিনা। এরপর চিকিৎসক ও কর্মকর্তাদের সাথে ছবিও তোলেন দুই বোন। প্রধানমন্ত্রী হাসপাতালে গিয়ে একজন সাধারণ রোগীর মতোই টিকিট কেনা থেকে শুরু করে সব আনুষ্ঠানিকতা সারেন বলে জানান হাসপাতালটির কনসালট্যান্ট আরিফুর রহমান নাইম।
২০১৩ সালের ১৮ নভেম্বর মালয়েশীয় প্রতিষ্ঠান কেপিজের সাথে বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্টের যৌথ উদ্যোগে এই হাসপাতালের যাত্রা শুরু হয়। এর নামকরণ হয় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্ত্রী বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের নামে, যিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মা। দেড় বছর আগে হাসপাতালটিতে চিকিৎসা নিতে গিয়ে বঙ্গবন্ধু-কন্যা বলেছিলেন, ‘আমি যদি কখনও অসুস্থ হয়ে পড়ি তাহলে আপনারা আমাকে বিদেশে নেবেন না। এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ওঠাবেন না। আমি দেশের মাটিতেই চিকিৎসা নেব। এই হাসপাতালে চিকিৎসা নেব।’

পাঠকের মন্তব্য:

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না। তারকাচিহ্নযুক্ত (*) ঘরগুলো আবশ্যক।

*