বিভাগ: উত্তরণ ডেস্ক

‘মানুষকে আমরা মানুষ হিসেবে দেখি, হরিজন হিসেবে নয়’

উত্তরণ ডেস্ক: ‘মানুষকে আমরা মানুষ হিসেবে দেখি। হরিজন বা অন্য কি সেটা আমরা দেখি না। আমার বাবা সেটাই শিখিয়েছেন।’ গত ৭ অক্টোবর শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের সুবর্ণজয়ন্তী উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঢাকার দয়াগঞ্জ ও ধলপুরে পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের জন্য নির্মিত আবাসনের উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কথা বলেন। এ সময় তিনি, স্মৃতিচারণ করে বলেন, ‘আমি যখন ছিয়ানব্বই সালে প্রথমবার প্রধানমন্ত্রী হলাম, আমার বোন রেহানার মেয়ে আমাকে বলল, এই যে হরিজন সম্প্রদায় তারা খুব অবহেলিত, তাদের থাকার জায়গা নেই। তাদের কয়েকজনকে গণভবনে নিয়ে এলো। ‘তখনই আমরা প্রজেক্ট নিয়েছিলাম হরিজন সম্প্রদায়ের জন্য। কিন্তু আমাদের মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছিল। পরবর্তীতে বিএনপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর এমনভাবে টাকা-পয়সা লুট করে খেয়ে যায় যে, ওখানে চারতলা ভবন নির্মাণ করা হয়েছিল, কিন্তু থাকার উপযোগী ছিল না। তখন যিনি মেয়র ছিলÑ সাদেক হোসেন খোকা, সে সব টাকাই লুট করে খেয়ে চলে যায়, চুরি করে চলে যায়।’ নতুন করে প্রকল্প নেওয়ার কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা জানান, প্রথম প্রকল্পে ১৩টা বহুতল ভবনের পরিকল্পনা ছিল। দয়াগঞ্জে ৫টি ভবনে ৪৪০টি ফ্ল্যাট, ধলপুরে ৫টি ভবনে ৪৮০টি ফ্ল্যাট এবং সূত্রাপুরে ৩টি ভবনে ২২৮টি ফ্ল্যাট নির্মাণের প্রকল্প ছিল। মোট ১৯০ কোটি টাকার পরিকল্পনা ছিল। তার মধ্যে নির্মাণ শেষ হওয়া ৪টি ভবন গত ৮ অক্টোবর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।
শেখ হাসিনা বলেন, ‘পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য আধুনিক যন্ত্রপাতি সংযোজনের কথা আমি মন্ত্রীদের বলে দিয়েছি। তাদের (পরিচ্ছন্নতাকর্মী) জীবনমান যেন সুন্দর হয় সেটা নিশ্চিত করা সরকার হিসেবে আমাদের দায়িত্ব।’
ঢাকার মতো প্রতিটি জেলা-উপজেলায়ও যারা পরিচ্ছন্ন কাজের সঙ্গে যুক্ত, তাদের আবাসনের ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেন তিনি।

পাঠকের মন্তব্য:

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না। তারকাচিহ্নযুক্ত (*) ঘরগুলো আবশ্যক।

*