বিভাগ: সংগঠন

শোভন সভাপতি রাব্বানী সাধারণ সম্পাদক : বাংলাদেশ ছাত্রলীগের নতুন নেতৃত্ব

8-6-2018 7-01-36 PMসরদার মাহামুদ হাসান রুবেল: সম্মেলনের আড়াই মাসের বেশি সময় পর গত ৩১ জুলাই আগামী দুই বছরের বছরের জন্য ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। নতুন কেন্দ্রীয় কমিটিতে রেজানুল হক চৌধুরী শোভনকে সভাপতি ও গোলাম রাব্বানীকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ওপর অর্পিত ক্ষমতাবলে ছাত্রলীগের কমিটি অনুমোদন করেছেন। একই সঙ্গে সংগঠনের অন্য তিন গুরুত্বপূর্ণ ইউনিট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা মহানগর উত্তর এবং ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে।
ঘোষিত কমিটিতে ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি হয়েছেন সঞ্জিত চন্দ্র দাস এবং সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন সাদ্দাম হোসাইন। অন্যদিকে ঢাকা মহানগর উত্তর শাখায় মো. ইব্রাহিমকে সভাপতি ও সাইদুর রহমান হৃদয়কে সাধারণ সম্পাদক এবং ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখায় মেহেদী হাসানকে সভাপতি ও জোবায়ের আহমেদকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে।
ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ৩৬তম ব্যাচের শিক্ষার্থী। তার বাড়ি কুড়িগ্রাম জেলায়। অন্যদিকে কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী একই বিভাগের ৩৫তম ব্যাচের শিক্ষার্থী। তার বাড়ি মাদারীপুরে। এদিকে ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকও আইন বিভাগের শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস ৩৭তম ব্যাচের। তার বাড়ি ময়মনসিংহে। আর সাধারণ সম্পাদক হোসাইন সাদ্দাম ৩৯ ব্যাচের। তার পঞ্চগড়ে।
ছাত্রলীগের নতুন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রেজানুল হক চৌধুরী শোভন বিদায়ী কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যনির্বাহী সংসদ সদস্য ছিলেন। সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী ছিলেন বিদায়ী কেন্দ্রীয় কমিটির শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক। এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার নতুন সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল কমিটির সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন বিদায়ী কেন্দ্রীয় কমিটির আইন বিষয়ক উপ-সম্পাদক ছিলেন।  গত ১১ ও ১২ মে ছাত্রলীগের ২৯তম জাতীয় সম্মেলন হয়। সম্মেলনের কাউন্সিল অধিবেশনে নতুন কমিটি ঘোষণার দায়িত্ব প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন সারাদেশ থেকে আসা কাউন্সিলররা। এর আগে সংগঠনের শীর্ষ দুই পদে আসতে ইচ্ছুক ৩২৩ জন নেতা মনোয়ন ফরম ক্রয় ও জমা দেন। নেতৃত্ব প্রত্যাশীদের ওই তালিকা থেকে যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে কমিটি ঘোষণার কথা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর ৪ জুলাই সব পদপ্রত্যাশীকে গণভবনে ডেকে কথাও বলেন শেখ হাসিনা। পদপ্রত্যাশীদের তালিকা পুঙ্খানুপুঙ্খ যাচাই-বাছাই করে আগামী জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে পরিশ্রমী, ত্যাগী, মেধাবী, নিয়মিত ছাত্র, সাহসী, শিক্ষার্থীদের মাঝে জনপ্রিয়, পরিচ্ছন্ন ইমেজ ও সাংগঠনিক দক্ষতাসম্পন্ন এবং যারা অতীতে আন্দোলন-সংগ্রামে রাজপথে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছেনÑ তাদের মধ্য থেকে শীর্ষ নেতৃত্ব বেছে নেওয়া হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য:

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না। তারকাচিহ্নযুক্ত (*) ঘরগুলো আবশ্যক।

*