প্রয়াতজন : শ্রদ্ধাঞ্জলি

Posted on by 0 comment

উত্তরণ প্রতিবেদন:
55মাহবুবুল হক শাকিল। কবি। প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী। রাজনীতিক। সাবেক তুখোড় মেধাবী এই ছাত্রনেতার জন্ম ১৯৬৮ সালের ২০ ডিসেম্বর। বড় হয়েছেন ময়মনসিংহে। পড়েছেন ময়মনসিংহের মৃত্যুঞ্জয় স্কুল, ময়মনসিংহ জিলা স্কুল ও আনন্দমোহন কলেজে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগ থেকে ¯œাতক ও ¯œাতকোত্তর করেছেন কবি শাকিল। স্কুলজীবনেই ছাত্র রাজনীতিতে যোগ দিয়েছিলেন। শাকিল ছাত্রজীবনে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি সদস্য, সাংগঠনিক সম্পাদক ও পরে সহ-সভাপতি ছিলেন। নব্বইয়ের ছাত্র গণ-অভ্যুত্থানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা শাকিল আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহ-সম্পাদকও ছিলেন।
তিনি নিবিড়ভাবে কাজ করেছেন বঙ্গবন্ধু-কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে। ২০০১-এর নির্বাচনের পর আওয়ামী লীগের গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিআরআই’তে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে কাজ শুরু করেন শাকিল, এরপর তিনি বিরোধীদলীয় নেত্রী শেখ হাসিনার উপ-প্রেস সচিবের দায়িত্ব পান। ২০০৮-এর জাতীয় নির্বাচনের পর তিনি প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব ও পরে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী (মিডিয়া) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সিআরআই’র সাথে সবসময় গভীরভাবে সংশ্লিষ্ট থেকেছেন তিনি। ২০১৪ সাল থেকে অতিরিক্ত সচিব মর্যাদায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারীর পদে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন মাহবুবুল হক শাকিল, মৃত্যু অবধি তিনি এই পদেই দায়িত্বরত ছিলেন। নিজ দলের বাইরে অন্য দলের নেতা-কর্মীদের কাছেও তিনি সজ্জন হিসেবে পরিচিত ছিলেন। দেশের শিল্প-সংস্কৃতির অঙ্গনেও পরিচিত নাম মাহবুবুল হক শাকিল।
২০১৫ একুশে বইমেলায় তার প্রথম কবিতার বই ‘খেরোখাতার পাতা থেকে’ প্রকাশিত হয়। ২০১৬ বইমেলায় প্রকাশ হয় দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘মন খারাপের গাড়ি’। ২০১৭-এর একুশে বইমেলায় কবির আরেকটি বই প্রকাশের কথা রয়েছে এবং একটি গল্পগ্রন্থও প্রকাশিত হতে পারে।
২০১৬-এর ৬ ডিসেম্বর শাকিল মাত্র ৪৮ বছর বয়সে অকস্মাৎ মৃত্যুবরণ করেন। প্রধানমন্ত্রী তার বিশেষ সহকারীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেন। জাতীয় সংসদের স্পিকার, মন্ত্রীবর্গসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ ও সুহৃদ স্বজন শোক প্রকাশ করেছেন।
শাকিলের বাবা ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল হক এবং মা স্কুলশিক্ষক নুরুন্নাহার।

Category:

Leave a Reply