প্রয়াতজন : শ্রদ্ধাঞ্জলি

Posted on by 0 comment

53b সংগীতশিল্পী লাকী আখান্দ
পরলোক গমন করেছেন বাংলা সংগীতাঙ্গনের কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী বীর মুক্তিযোদ্ধা লাকী আখান্দ। জনপ্রিয় গীতিকার, সুরকার, কণ্ঠশিল্পী ও মুক্তিযোদ্ধা লাকী আখান্দের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা, জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।
লাকী আখান্দ ১৯৫৬ সালের ১৮ জুন তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের (বর্তমান বাংলাদেশ) ঢাকার পাতলা খান লেনে জন্মগ্রহণ করেন। মাত্র পাঁচ বছর বয়সেই তিনি তার বাবার কাছ থেকে সংগীত বিষয়ে হাতেখড়ি নেন। তিনি ১৯৬৩ থেকে ১৯৬৭ সাল পর্যন্ত টেলিভিশন এবং রেডিওতে শিশুশিল্পী হিসেবে সংগীতবিষয়ক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন। তিনি মাত্র ১৪ বছর বয়সেই এইচএমভি পাকিস্তানের সুরকার এবং ১৬ বছর বয়সে এইচএমভি ভারতের সংগীত পরিচালক হিসেবে নিজের নাম যুক্ত করেন।
লাকী আখান্দ ছিলেন একাধারে সংগীত পরিচালক, সুরকার এবং গীতিকারও। ১৯৮৪ সালে সারগামের ব্যানারে বের হয় তার প্রথম একক অ্যালবাম ‘লাকী আখান্দ’। ওই অ্যালবামের বেশ কয়েকটি গান ব্যাপক সাড়া ফেললেও ১৯৮৭ সালে ছোট ভাই হ্যাপী আখন্দের মৃত্যুর পরপর সংগীতাঙ্গন থেকে অনেকটা স্বেচ্ছা নির্বাসনে যান এই গুণী শিল্পী। তারপর প্রায় এক দশক নীরব থেকে লাকী আখান্দ ১৯৯৮-এ ‘পরিচয় কবে হবে’ ও ‘বিতৃষ্ণা জীবনে আমার’ অ্যালবাম দুটি নিয়ে আবারও ফিরে আসেন শ্রোতাদের মাঝে।
আবৃত্তিশিল্পী মুক্তিযোদ্ধা কাজী আরিফ
53aপ্রখ্যাত আবৃত্তিশিল্পী, মুক্তিযোদ্ধা ও প্রথিতযশা স্থপতি কাজী আরিফ আর নেই। নিউইয়র্কের স্থানীয় সময় ২৯ এপ্রিল রাতে তিনি ম্যানহাটনের মাউন্ট সিনাই সেন্ট লিওক্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। হার্টের সমস্যাজনিত কারণে দীর্ঘদিন ধরে এই হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।
প্রখ্যাত আবৃত্তিশিল্পী ও মুক্তিযোদ্ধা কাজী আরিফের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
কাজী আরিফ ১৯৫২ সালের ৩১ অক্টোবর তৎকালীন বৃহত্তর ফরিদপুরের রাজবাড়ীতে জন্মগ্রহণ করেন। তার শিক্ষা ও বেড়ে ওঠা চট্টগ্রাম শহরে। উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করেছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়-বুয়েটে।
পেপশায় স্থপতি এই গুণী আবৃত্তিশিল্পী একাধারে লেখক ও মুক্তিযুদ্ধ সংগঠক। ১৯৭১ সালে ‘১ নম্বর সেক্টর’-এর মেজর রফিকের কমান্ডে সরাসরি মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন তিনি। বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের প্রতিষ্ঠাকালীন উদ্যোক্তাদের একজন তিনি। সারাদেশ ঘুরে আবৃত্তির প্রশিক্ষণ দিয়েছেন সংগঠনগুলোতে। প্রজ্ঞা লাবণী-কাজী আরিফ বাংলাদেশের প্রথম জনপ্রিয় হওয়া আবৃত্তিজুটি।

Category:

Leave a Reply