শততম টেস্টে স্বপ্নের জয়

Posted on by 0 comment

56আরিফ সোহেল: টার্গেট ১৯১। তামিমের ব্যাটে জয়ের স্বপ্ন নিশ্চিত। কিন্তু প্রান্তসীমায় এসে একটু নার্ভাসনেস। একে একে ৬ ব্যাটারের সাজঘরে ফেরা। ভরসা বাতিঘর হয়ে দাঁড়িয়ে মুশফিকুর রহীম; ২২ রানে অপরাজিত। সেট ব্যাটসম্যান মোসাদ্দেক ফিরে গেলেন যখন, তখন জয়ের জন্য প্রয়োজন ২ রান। উইকেটে নতুন ব্যাটার মিরাজ। আবার কোনো অঘটনা! এমন শঙ্কার চাদর সরিয়ে বোলার হেরাথকে সুইপ করেই লাফিয়ে উঠলেন মিরাজ। অন্যপ্রান্তে আগুয়ান অধিনায়ক মুশফিকও ছুটে এলেন। জড়িয়ে ধরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করলেন একে-অপরের। ঠিক এমন একটি দিনের স্বপ্ন-বিভোর মুহূর্তের অপেক্ষায় ছিল গোটা বাঙালি জাতি।
বিদেশের মাটিতে শততম টেস্ট। প্রতিপক্ষ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন শ্রীলংকা। তাদের মাটিতে বাংলাদেশের লাল-সবুজের বিজয় পতাকা উড়িয়েছেন তামিম-সাকিব-মুশফিক-মোসাদ্দেক-মিরাজ-মুস্তাফিজরা। এনে দিয়েছেন ইতিহাস জ্বলজ্বল করা ৪ উইকেট ব্যবধানের এক জয়। শ্রীলংকার প্রথম ইসিংসে ৩৩৮ রানের পর বাংলাদেশ লিড পেয়েছিল ১২৯ রানের। সাকিবের সেঞ্চুরিতে ৪৬৭ রান করার পরই ক্রিকেট বিশ্ব বাংলাদেশের জয় দেখেছিল। হয়েছেও তাই। দ্বিতীয় ইনিংসে শ্রীলংকার ৩১৯ রানের পর টার্গেট দাঁড়িয়েছিল ১৯১ রান। ৬ উইকেট হারিয়ে সেই স্বপ্নিল জয় এনে দিয়েছে বাংলাদেশ। শততম ম্যাচে এর আগে জয় পেয়েছিল অস্ট্রেলিয়া, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং পাকিস্তান। এই কীর্তিগাথা বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য নতুন মাইলফলক।
তামিম প্রথম ইনিংসে ৪৯ রানের পর দ্বিতীয় ইনিংসে খেলেছেন ৮২ রানের এক অনবদ্য ইনিংস। তাই এই ম্যাচ সেরা তামিমই। সাকিবের বোলিং ৬ উইকেটের সাথে প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি করে জয়ের ভিত রচনায় নেতৃত্ব দিয়েছেন। নবীন মোসাদ্দেকের (৭৫) দায়িত্বশীল ব্যাটিংও ছিল উপভোগ্য উপজীব্য।
দ্বিতীয় ইনিংসে ১২৯ রান পিছিয়ে থেকে শ্রীলংকার শুরুটাও ছিল বাজে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাদের ইনিংসটা কিন্তু মন্দ হয়নি। মুস্তাফিজের ফিরে আসাটাও মন্দ ছিল না এই টেস্ট সিরিজে।
প্রথম টেস্ট হেরে সিরিজে এগিয়ে যাওয়া শ্রীলংকাকে তাদের মাটিতে এভাবে নাকাল করবে অনেকেই ভাবেনি। কিন্তু সেই ভাবনাকে ভুল প্রমাণ করেছেন সাকিব-মুশফিকরা-সাব্বির-মোসাদ্দেকরা। সাকিব টেস্টে তুলে নিয়েছেন ক্যারিয়ারের পঞ্চম সেঞ্চুরি। পি. সারা ওভালে বাংলাদেশের জয় দেখে পিন-পতন নীরবতায় ভেঙে পড়েছিলেন শ্রীলংকান ক্রিকেটপ্রেমীরা। ২ টেস্ট সিরিজে ১-১ সমতায় থাকা বাংলাদেশ ওয়ানডের সূচনা ম্যাচেও জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছে। টেস্টের জয়েই যেন এখন বেজায় অনুপ্রাণিত বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে গেলেও তাসকিনের হ্যাটট্রিক নতুন এক উচ্চতার স্তম্ভ হিসেবেই থাকবে ইতিহাসে। তৃতীয় ম্যাচে লড়াই করে হারের বেদনাটা মধুরই হয়ে থাকবে ১-১-এ সিরিজ সমতায়।

Category:

Leave a Reply