হাতিরঝিলে অ্যাম্ফিথিয়েটার ও মিউজিক্যাল ড্যান্সিং ফাউন্টেন

Posted on by 0 comment

উত্তরণ ডেস্ক: হাতিরঝিল আগেই রাজধানীবাসীর বিনোদনের জনপ্রিয় কেন্দ্রে পরিণত হয়েছিল। এবার তাতে যোগ হলো অ্যাম্ফিথিয়েটার ও মিউজিক্যাল ড্যান্সিং ফাউন্টেন। বাংলা নতুন বছর শুরুর আগের দিন গত ১৩ এপ্রিল এই মুক্তমঞ্চ ও বর্ণিল ফোয়ারা উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, নাগরিকদের বিনোদনের জন্য এগুলো তার নববর্ষের উপহার।
লেকের পানির ওপর নির্মিত ২ হাজার আসনের অ্যাম্ফিথিয়েটার এবং মনোরম মিউজিক্যাল ড্যান্সিং ফাউন্টেন হাতিরঝিল প্রকল্পের অধীনে নগরবাসীর বিনোদনে নতুন সংযোজন। ১৩ এপ্রিল গণভবনে এক অনুষ্ঠান থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে স্থাপনা দুটির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, যারা টেলিভিশন বা ফেসবুক লাইভে এ অনুষ্ঠান দেখছেন, তাদের সবাইকে বাংলা নতুন বছরের আগাম শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। এগুলোকে দেশবাসীর জন্য ‘নববর্ষের উপহার’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা প্রতিনিয়ত জীবনযুদ্ধে কর্মরত। এ জীবনযুদ্ধে হিমশিম খাওয়া মানুষের তো মাঝে মাঝে একটু চিত্তবিনোদনের প্রয়োজন হয়। দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি মানুষের চিত্তবিনোদনের ব্যবস্থা করতেও সরকার আন্তরিক। তিনি বলেন, জীবন নিয়ে যাদের চিন্তাযুক্ত থাকতে হচ্ছে, সংগ্রাম করে যেতে হচ্ছে, সেখানে তাদের জীবনটাকে একটু সহজ করার চেষ্টা আমরা করে যাচ্ছি। স্থাপনাগুলোর রক্ষণাবেক্ষণ এবং পরিচ্ছন্নতার বিষয়ে যতœবান হতে নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানান তিনি।
মুখ্য সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সেনাপ্রধান আবু বেলাল মুহাম্মদ শফিউল হক। হাতিরঝিল প্রকল্পের পরিচালক মেজর জেনারেল আবু সাঈদ মো. মাসুদ তার বক্তব্যে জানান, এ মিউজিক্যাল ড্যান্সিং ফাউন্টেন দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বড়। গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, রাজউক এবং ঢাকা ওয়াসার সহযোগিতায় সেনাবাহিনীর স্পেশাল ওয়ার্কস অরগানাইজেশন (এসডব্লিউও-পশ্চিম) এ নির্মাণকাজ সম্পন্ন করে।
এ সময় অন্যদের মধ্যে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন এমপি, গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি উপস্থিত ছিলেন।

Category:

Leave a Reply