২৩০ বছর পর বালিশ পাচ্ছেন কারাবন্দিরা

Posted on by 0 comment

উত্তরণ ডেস্ক: দেশের কারাগারগুলোতে ২৩০ বছর পর প্রথমবারের মতো বন্দীদের ঘুমানোর জন্য সরবরাহ করা হচ্ছে তুলার বালিশ। বন্দীদের মধ্যে পর্যায়ক্রমে এই বালিশ সরবরাহ করা হবে বলে আশাবাদী কারা কর্তৃপক্ষ।
দেশে ৬৮টি কারাগারে বর্তমানে বন্দীর সংখ্যা প্রায় ৮০ হাজারের কাছাকাছি। বর্তমানে একমাত্র ডিভিশনপ্রাপ্ত ও হাসপাতালে ভর্তি বন্দীরা বালিশ ও মশারি ব্যবহারের সুযোগ পান। আর সাধারণ বন্দীদের জন্য সম্বল ৩টি কম্বল। একটি বিছানো হয়, অন্যটি ভাঁজ করে বালিশের মতো ব্যবহার করা হয় আর অন্যটি গায়ে দেওয়ার জন্য। তবে এ উদ্যোগের ফলে কারাগারে আটক সকল শ্রেণির বন্দীই এখন থেকে বালিশ ব্যবহারের সুযোগ পাবেন।
প্রসঙ্গত, ১৭৮৮ সালে একটি ক্রিমিনাল ওয়ার্ড চালুর মাধ্যমে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের (পুরনো ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে) যাত্রা শুরু। ২০১৬ সালে পুরনো ঢাকার এ কারাগারটি কেরানীগঞ্জে স্থানান্তর করা হয়। প্রতিবেশী দেশ ভারতে অনেক আগেই বন্দীদের বালিশ প্রদানসহ আরও কিছু সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হয়েছে।
সূত্র জানায়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতিক্রমে বালিশ সরবরাহের উদ্যোগ নিয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ। এরই ধারাবাহিকতায় কারা অধিদফতর ই-টেন্ডারের মাধ্যমে ইতোমধ্যে ৪৯ লাখ টাকা ব্যয়ে ১৬ হাজার ৪২০টি তুলার বালিশ ক্রয় করেছে। এছাড়া ৫০ হাজার ৩৫৫টি বালিশ কেনার প্রক্রিয়াও শুরু করেছে। প্রতিটি বালিশের ক্রয়মূল্য কভারসহ ৩০০ টাকা। আর প্রতিটি বালিশের ওয়ারেন্টি এক বছর। এ সময়ের মধ্যে যদি বালিশ নষ্ট হয়ে যায় তবে তা সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানকেই ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

Category:

Leave a Reply