শেখ মুজিব, আমার পিতা

শেখ হাসিনা: আমাদের পূর্বপুরুষরা টুঙ্গিপাড়া গ্রামে জমিজমা ক্রয় করে বসতির জন্য কলকাতা থেকে কারিগর ও মিস্ত্রি এনে দালানবাড়ি তৈরি করেন, যা সমাপ্ত হয় ১৮৫৪ সালে। এখনও কালের সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে সেই দালানের ধ্বংসাবশেষ। ১৯৭১ সালে যে দুটো দালানে বসতি ছিল, পাকিস্তÍানি হানাদার বাহিনী আগুন দিয়ে সে দুটোই জ্বালিয়ে দেয়। আমার আব্বার শৈশব কেটেছিল টুঙ্গিপাড়ার নদীর পানিতে ঝাঁপ দিয়ে, মেঠোপথের

Read more

বঙ্গবন্ধুর সান্নিধ্যে কয়েকটি কথা

আ মি র  হো সে ন  আ মু : আমাদের পারিবারিক ব্যবসা ছিল কলকাতায় (কাপড়ের দোকান)। থাকার বাড়িও ছিল। Hotel Bilkmore- এ আমার নানার শেয়ার ছিল। তার নাম ছিল বাদশা মিয়া (দত্তপাড়ার জমিদার)। পাকিস্তান হওয়ার পর পরিবারের সবাই একসাথে সবকিছু উইন্ডআপ/বিক্রি করে দেওয়ার জন্য যায়। ঐ সময় একদিন বিকেলে জনাব জাফর সাদেক (তানু নানা) বাসায় আসেন, কথাবার্তা বলার সময় আমাকে

Read more

১৫ আগস্ট, শোকাহত হৃদয়ের ভাব

শে খ রে হা না: ১৫ আগস্ট আমাদের কাছে এক শোকাবহ স্মৃতি। বেদনার্ত অশ্রুভারাক্রান্ত হৃদয় নিয়ে আমাদের সব সময় কাটে। মা-বাবা, ভাই ও প্রিয়জন হারানোর এই দুঃখ-কষ্ট, অভাববোধ আমাদের সব সময় তাড়া করে। আমাদের আবেগাচ্ছাদিত করে রাখে। ১৯৭৫ থেকে ২০০৪, এই ২৯ বছর (এখন ২০২০, ৪৫ বছর) ধরে লালন করে চলেছি আপনজনদের স্মৃতি। এক এক করে দিন কেটে যাচ্ছে, সময়ের

Read more

আমার দেখা মুজিব

সু ফি য়া কা মা ল: শেখ মুজিবুর রহমান যখন বঙ্গবন্ধু হননি, বলা যেতে পারে তার কিশোর বয়স থেকেই আমি তাকে জানি। সোহরাওয়ার্দীর সঙ্গে তাকে প্রথম দেখি কলকাতায়। তখন ইসলামিয়া কলেজের ছাত্র সে। রাজনীতিতে সোহরাওয়ার্দীর খ্যাতি যখন তুঙ্গে, সেই সময় থেকে ছাত্রকর্মী ছাত্রনেতা হিসেবে মুজিবুর রহমানকে আমি চিনি। নেতা হিসেবে সারাবিশ্বে পরিচিত হয়েছে মুজিবুর রহমান। কিন্তু আমার কাছে আমার ছোট

Read more

বঙ্গবন্ধুর সাথে অবিস্মরণীয় স্মৃতি

আ ব্দু ল মা লে ক ভূ ঞা:  মানুষের জীবনে কিছু অবিস্মরণীয় স্মৃতি থাকে। কোনো কোনো স্মৃতি শ্লাঘার, আনন্দের, গৌরবের। চিত্তমাঝে তা চির অমøান হয়ে রয়। আমার জীবনে ঐরূপ একটি গৌরবদীপ্ত স্মৃতি বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দাঁতের চিকিৎসা করার সুযোগ। যে-সময় আমার এই সুযোগ ঘটে তখন তিনি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। সদ্য স্বাধীন দেশকে সুখী, সুন্দর, উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে

Read more

এক সচেতন আমলার চোখে শেখ মুজিব

আ বু ল   মা ল  আ ব দু ল  মু হি ত : আউটার স্টেডিয়ামের কাঠের গ্যালারি। বেশির ভাগ ফুটবল খেলা ওখানে জমে। সময়টা ১৯৬২-৬৩ সাল। শেখ মুজিব প্রায়ই ফুটবল খেলা দেখতে আসতেন। প্রায় পাঁচ বছর পর খেলার মাঠে তার সঙ্গে দেখা হলো। আমার চাকরি-জীবনের শুরুতে ১৯৫৭ সালে তার সঙ্গে শেষবারের মতো দেখা হয়েছিল কুমিল্লায়। তখন তিনি ছিলেন প্রাদেশিক মন্ত্রিসভায়

Read more

সংস্কৃতি ও শিল্পবান্ধব বঙ্গবন্ধু

আ তা উ র  র হ মা ন : আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মৃত্তিকালগ্ন শিল্প, সংস্কৃতি এবং কৃষ্টিতে বিশ্বাস করতেন। তিনি শিকড় থেকে উৎসারিত, মনে-প্রাণে ও হৃদয়ে একজন বাঙালি ছিলেন। টুঙ্গিপাড়ার জল-হাওয়ায় বেড়ে ওঠা বাবা-মায়ের আদরের ছেলে খোকাই কালে হয়ে উঠলেন বাঙালির ত্রাতা এক মহামানব। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনৈতিক সংগ্রাম, প্রজ্ঞা এবং বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা

Read more

স্মৃতির ভাণ্ডার থেকে

আ বে দ খা ন :  একটা বিশেষ ঘটনা দিয়ে শুরু করি। তখন দৈনিক ইত্তেফাক মোনায়েম খানের হাত থেকে রেহাই পেয়েছে কেবলমাত্র। মুজিব ভাইকে বাংলাদেশের মানুষ পাক-সামরিক জান্তার ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে মুক্ত করে এনেছে। সংগ্রামী ছাত্রনেতা তোফায়েল আহমেদ বিশাল জনসমুদ্রকে সাক্ষী রেখে আনুষ্ঠানিকভাবে তাকে ভূষিত করেছেন ‘বঙ্গবন্ধু’ উপাধিতে। আজ সমগ্র বিশ্বের কণ্ঠে তার এই উপাধি নামের সঙ্গে অবিচ্ছেদ্যভাবে স্থায়ী

Read more

গিরিরাজ হিমালয়-শেখ মুজিব

ই না ম আ হ ম দ চৌ ধু রী: বিশ্বখ্যাত বিজ্ঞানী আইনস্টাইন মহাত্মা গান্ধীর তিরোধানে বলেছিলেন, “আগামী প্রজন্মের কাছে অবিশ্বাস্য মনে হবে যে তাঁর মতো রক্তমাংসের গড়া একজন মানুষ কোনোকালে পৃথিবীর বুকে পদচারণা করেছিলেন।” সত্য, সাম্য ও ন্যায়ের ধ্বজাধারী কালজয়ী বিপ্লবী কিউবার নেতা ফিদেল কাস্ত্রো বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে একটি মন্তব্য করেছিলেন। বলেছিলেন, “হিমালয় (পৃথিবীর সর্বোচ্চ পর্বত) তিনি কখনও দেখেন নি

Read more

বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি ও তার উন্নয়ন দর্শন

এ ম সা ই দু জ্জা মা ন ১. জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে আমার পরিচয়ের বিষয়টি অবিশ্বাস্য শেখ মুজিবুর রহমানের কথা আমরা প্রথম জানতে পারি ১৯৪৮ সালে ঢাকা সচিবালয়ের কাছের আন্দোলনের প্রেক্ষিতে। আমি তখন হাইস্কুলে দশম শ্রেণির ছাত্র, ময়মনসিংহ জেলা স্কুলে। তারপর শুনি ১৯৪৯ সালে শেখ মুজিবুর রহমানের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের বেতন-ভাতা সম্বন্ধে দাবির আন্দোলনে

Read more