মুজিববর্ষ : ২০২০-২০২১, অন্য আলোকে জাতির জনক-স্মরণে সান্নিধ্যে স্মৃতিতে

সম্পাদকীয়: বিজয়ের মাস। গৌরবের মাস। শৃঙ্খল মোচনের মাস। এই মাসে আমরা সমগ্র দেশবাসীকে জানাচ্ছি বিজয় অভিনন্দন। স্মরণ করছি বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। নমিত শ্রদ্ধা জানাচ্ছি মুক্তিযুদ্ধের ত্রিশ লাখ শহিদের পবিত্র স্মৃতির প্রতি। স্মরণ করছি জাতীয় চার নেতাসহ গত অর্ধশতাব্দী কালে গণতান্ত্রিক সংগ্রামের সকল শহিদকে।
আমরা বিশেষভাবে আনন্দিত, শেষ পর্যন্ত আমরা ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে উত্তরণ-এর একটি বিশেষ সংখ্যা ‘অন্য আলোকে জাতির জনক : স্মরণে সান্নিধ্যে স্মৃতিতে’ প্রকাশ করতে সক্ষম হয়েছি। এটা কোনো গতানুগতিক স্মারক সংখ্যা নয়। এই বিশেষ সংখ্যার থিম হলো ‘বঙ্গবন্ধুর সান্নিধ্যের ব্যক্তিগত স্মৃতিচারণ’। বঙ্গবন্ধুর মহাকাব্যসম জীবনের বিভিন্ন রাজনৈতিক উদ্যোগ, আন্দোলন, জাতীয় পুনর্গঠন, ইত্যাকার রাজনৈতিক মূল্যায়নধর্মী লেখা নয়, যারাই বঙ্গবন্ধুকে কাছ থেকে দেখেছেন, তার সঙ্গে যাদের কাজের সম্পর্ক ছিল, যারা তার আদেশ-নির্দেশ-পরামর্শ শুনেছেন এবং অত্যন্ত পারিবারিক পরিবেশেও তার সংস্পর্শে এসে ব্যক্তি মুজিবকে, তার খাদ্যাভাস, ব্যক্তিগত জীবনাচরণ, তার স্নেহ-মায়া-মমতা, বাৎসল্যের পরিচয় পেয়েছেন, তার উদারতা, তার সরলতা, দুর্বলতা পর্যবেক্ষণ করেছেন, যারা তার পার্শ্বচর হিসেবে রাষ্ট্র ও সরকার পরিচালনায় অংশগ্রহণ করেছেন, তাদের অভিজ্ঞতা-সঞ্জাত স্মৃতিকথা-ই এই বিশেষ সংখ্যার মূল উপজীব্য। আমরা চেষ্টা করেছি মূল থিমের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকতে। অবশ্য কারও কারও সাধারণ মূল্যায়নধর্মী লেখা আমরা এই সংখ্যায় ছাপাতে পারিনি। আশা করি তারা আমাদের ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।
যাদের লেখা বাদ পড়েছে, পরবর্তী সংখ্যায় তাদের লেখা আমরা উত্তরণ-এ প্রকাশ করব।
এই সংখ্যা পাঠ করলে অন্য এক শেখ মুজিবকে পাঠক আবিষ্কার করবেন এবং শিহরিত হবেন। বঙ্গবন্ধুকে সামগ্রিকতায় বুঝতে এই সংখ্যার লেখাগুলো সাহায্য করবে। ইতিহাসের বা মহাকাব্যের মহানায়কের জীবনের অজানা অনেক তথ্য, অনেক দৃশ্যপট পাঠককে কৌতূহলী করবেÑ শিহরিত করবে, অনুপ্রাণিত করবে।
এই সংখ্যায় যারা লিখেছেন তাদের সবার প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতা। এক বছরের ধৈর্যশীল চেষ্টায় আমাদের দেশ-বিদেশের জ্ঞানী-গুণীদের লেখা সংগ্রহ করতে হয়েছে।
এই বিশেষ সংখ্যা প্রকাশে যারা বিজ্ঞাপন দিয়ে, নগদ অর্থ দিয়ে সাহায্য করেছেন তাদের প্রতিও উত্তরণ-এর কৃতজ্ঞতার শেষ নেই। সংখ্যাটি সবার ভালো লাগলে আমাদের শ্রম সার্থক হয়েছে মনে করব। জাতির পিতার প্রতি পুনরায় অমিত শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply