প্রয়াতজন : শ্রদ্ধাঞ্জলি

আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেক বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন (৬৬) আর নেই। গত ২৪ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি … রাজিউন)। তিনি স্ত্রী, সন্তান, পরিবার-পরিজনসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন, সহকর্মী, গুণগ্রাহী ও শুভানুধ্যায়ী রেখে গেছেন। ২৫ ডিসেম্বর সকাল ১০টায় রাজধানীর মাজার রোডস্থ বাসভবনে মরহুমের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন এবং পটুয়াখালী জেলার নিজ গ্রামে তার জানাজা ও দাফন সম্পন্ন করা হবে। এর আগে ৩ ডিসেম্বর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বিএসএমএমইউ’তে ভর্তি হন সাবেক সংসদ সদস্য আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন। এর মধ্যে তার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এলেও শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়নি। আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শোকবার্তায় শেখ হাসিনা দুঃসময়ে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ প্রতিষ্ঠায় আ খ ম জাহাঙ্গীরের সংগ্রাম এবং সাংগঠনিক দক্ষতার কথা স্মরণ করেন। তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর হোসাইনের মৃত্যুতে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে এক শূন্যতার সৃষ্টি হলো।’ আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি। বিবৃতিতে তিনি মরহুম আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইনের আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবার-পরিজন, সহকর্মী, গুণগ্রাহী ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

আয়শা খানম
বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি, নারীনেত্রী ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আয়শা খানম গত ২ জানুয়ারি ভোরে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। আয়শা খানমের মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শোকবার্তায় রাষ্ট্রপতি বলেন, নারী অধিকার প্রতিষ্ঠায় আয়শা খানমের অবদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে। প্রধানমন্ত্রী শোকবাণীতে বলেন, এই নারীনেত্রীর মৃত্যুতে দেশের নারীসমাজ একজন অকৃত্রিম বন্ধু ও সাহসী সহযোদ্ধাকে হারাল। ৭৪ বছর বয়সী আয়শা খানম ফুসফুসের ক্যানসারে ভুগছিলেন। ২ জানুয়ারি ভোরের দিকে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়, সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। হাসপাতাল থেকে আয়শা খানমের মরদেহ সকালে মহিলা পরিষদ কার্যালয়ে নেওয়া হয়। সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে মরদেহ ধানমন্ডির বাসায় নেওয়া হয়। এরপর আয়শা খানমের মরদেহ তার বাড়ি নেত্রকোনায় নিয়ে যাওয়া হয়। মেয়ে উর্মি খানসহ স্বজন ও পরিষদের কয়েকজন কর্মী এ সময় সঙ্গে ছিলেন। সেখানে এই বীর মুক্তিযোদ্ধাকে ‘গার্ড অব অনার’ প্রদান করা হয়। পরে জানাজা শেষে নিজ গ্রাম গাবড়াগাতিতে স্বামীর কবরের পাশে তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত করা হয়।

কথাসাহিত্যিক রাবেয়া খাতুন
স্বাধীনতা ও একুশে পদকপ্রাপ্ত নন্দিত কথাসাহিত্যিক রাবেয়া খাতুন গত ৩ জানুয়ারি বিকাল ৫টার দিকে রাজধানীর বনানীতে নিজ বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। তিনি বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। তার মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply